কমলার উপকারিতা ( Health Benefits of Orange)

কমলার উপকারিতা । Health benefits of Orange. যদিও কমলা প্রায় সারা বছরই পাওয়া যায় তারপরও শীতের কমলার যেনো ভিন্ন একটা স্বাদ। এসময় কমলার দামও কমে দাঁড়ায় প্রায় অর্ধেকে। কমলার পুষ্টিগুন সম্পর্কে যদি আপনার জানা থাকে তবে তো নিশ্চিতে কমলা খেয়ে শরীর প্রয়োজনীয় পুষ্টি চাহিদা মেটাতে পারেন। প্রতিদিন একটি করে কমলা খাওয়ার অভ্যাস আপনাকে রাখবে সুস্থ-সবল ও প্রাণবন্ত। প্রতিদিন এক গ্লাস করে কমলার জ্যুস বা একটি কমলা খাওয়ার অভ্যাস করা বেশ কঠিন কাজ নয়। তবে জ্যুসের চেয়ে ফলটিই খাওয়া ভাল। কারণ, কমলায় রয়েছে আঁশ, যা আমাদের বিপাকীয় প্রক্রিয়াকে শক্তিশালী করে। আরও পড়তে পারেন অলিভ অয়েলের উপকারিতা অথবা জিরা পানির জাদুকরী গুন

কমলার উপকারিতা

ওজন কমানো, ত্বকের পুষ্টি এমন কি হৃদযন্ত্র ভালো রেখে শরীরে রক্ত চলাচল নিয়মিত রাখতে সাহায্য করে কমলা।কমলার রয়েছে আরো অনেক উপকারিতা।আপনাদের জন্য তো আজকের টিপস ‘কমলার উপকারিতা।

Health Benefits of Orange

1. রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে (Immunity Enhancer)

কমলা আপনার প্রতিদিনের ভিটামিন সি এর চাহিদা পূরণ করে। একই সঙ্গে এ ফলটিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট জাতীয় উপাদান। এ পুষ্টি উপাদানসমূহ রোগ-প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় এবং ছোটবড় নানা ব্যাধি ও সংক্রমণ থেকে সুরক্ষা দেয়।
আমাদের মুখে ভিটামিন সি এর অভাবে যে ঘাঁ হয় সেটার ঔষুধ হিসেবে কমলা অনেক ভাল কাজ করে।এটি ব্লড প্রেসার নিয়ন্ত্রনে সাহায্য করে।কমলাতে উপস্থিত বিটা ক্যারোটিন সেল ড্যামেজ প্রতিরোধে সহায়তা করে।এতে উপস্থিত ক্যালসিয়াম যা দাঁত ও হাঁড়ের গঠনে সাহায্য করে।

2. সুন্দর ত্বকের জন্য (Beautiful Skin)
বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের ত্বকও দ্রুত বুড়িয়ে যেতে শুরু করে। ভিটামিন সি ছাড়াও কমলায় থাকা অ্যান্টি-অক্সিডেন্টসমূহ ত্বককে সতেজ ও সজীব রাখতে সাহায্য করে। বার্ধক্যেও ত্বককে অনেকটাই মসৃণ রাখে, সহজে বলিরেখা পড়ে না। কারণ, অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও ভিটামিস সি ত্বকের লাবণ্য ধরে রাখে বহু বছর। ফলে, বয়স বাড়লেও, আপনাকে দেখাবে চিরতরুণের ন্যায়।

3. চোখের জন্য (Good Eyesight)
প্রতিদিন একটি করে কমলা খাওয়ার অভ্যাস আপনার দৃষ্টিশক্তিকে ভাল রাখে। কারণ, কমলায় রয়েছে ভিটামিন এ, সি ও পটাসিয়াম। এ ভিটামিনগুলো আপনার দৃষ্টিশক্তির জন্য বেশ উপকারী।

4. পাকস্থলীর আলসার থেকে সুরক্ষায় (Protects from Peptic-ulcer)
আঁশের অন্যতম উৎস কমলা পাকস্থলীকে সুস্থ রাখে। নিয়মিত কমলা খাওয়ার অভ্যাস পাকস্থলীর আলসার ও কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে সুরক্ষা দেবে। পাকস্থলীকে রাখবে সবল।

5.ক্যান্সার প্রতিরোধ (anti-cancer)
কমলায় প্রচুর পরিমাণ ভিটামিনের পাশাপাশি রয়েছে আলফা ও বেটা ক্যারোটিনের মতো ফ্ল্যাভনয়েড অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট সহ অন্যান্য অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যৌগ যা ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। কমলায় উচ্চমাত্রার পুষ্টিগুণ হচ্ছে ফ্ল্যাভনয়েড যা ফুসফুস এবং ক্যাভিটি ক্যান্সার প্রতিরোধে কার্যকর। তাই ক্যান্সার থেকে রক্ষা পেতে প্রতিদিন ১ টি কমলা খাওয়া উচিত।
কমলার ভিটামিন সি উপাদান (vitamin C content) আমাদের শরীরে ক্যান্সার প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। এটি আমাদের শরীরের কোলন ক্যান্সার (colon cancer) ও ব্রেস্ট ক্যান্সারের (breast cancer) অন্যতম সেল প্রতিরোধক হিসেবে কাজ করে।

6. ব্যথা উপশম (pain killer)
ব্যথা উপশমে কমলার তুলনা হয়না। কমলা ও কমলার জুসের পুষ্টিমাণ আমাদের শরীরের যেকোন ধরণের ব্যথা উপশমে প্রত্যক্ষ ভূমিকা রাখে।

7. কিডনি রক্ষা (kidney protector)
কমলার উচ্চ সাইট্রেট উপাদান ( high citrate content) কিডনি রক্ষা করে কিডনিতে পাথর হওয়ার ঝুঁকি কমায়। এক সমীক্ষায় দেখা গেছে লেবুর থেকে কমলার জুস আরও ভালভাবে আমাদের কিডনির দেখভাল করে।

8. ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণ (diabetes management)
কমলা একটি উচ্চ ফাইবার সমৃদ্ধ ফল। আর দি নিউ ইংল্যান্ড জার্নাল অফ মেডিসিন(the New England Journal of Medicine) থেকে প্রকাশিত একটি আর্টিকেলে লিখা হয়েছে উচ্চ ফাইবার আমাদের শরীরের সুগারের মাত্রা কমিয়ে ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে একটি বড় অবদান রাখে। তাই ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রনে নিয়মিত কমলা গ্রহণের বিকল্প হয়না।

9. কলেস্টেরল হ্রাস (cholesterol reducer)
প্রতিদিন ৭৫০ মিলি. কমলার জুস গ্রহণ করলে আমাদের শরীরের ক্ষতিকর কলেস্টেরল (bad cholesterol) এর মাত্রা কমে গিয়ে উপকারী কলেস্টেরল (good cholesterol) এর পরিমাণ বেড়ে যাই। তাই আমাদের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করতে নিয়মিত একগ্লাস কমলার জুস খাওয়া খুব উপকারী।

10. হার্ট সুস্থ রাখে:
কমলায় আছে প্রচুর পরিমাণে খনিজ উপাদান যা হৃদস্পন্দন নিয়ন্ত্রণ করার পাশাপাশি নিয়মিত রাখতে সাহায্য করে।পটাশিয়াম এবং ক্যালশিয়ামের মতো খনিজ উপাদানগুলো শরীরে সোডিয়ামের প্রভাব নিয়ন্ত্রণের মাধ্যমে রক্তচাপ ও হৃদস্পন্দন ঠিক রাখতে সাহায্য করে। কমলার চর্বিহীণ আঁশ, সোডিয়াম মুক্ত এবং কোলেস্টেরল মুক্ত উপাদানগুলো হৃদপিণ্ড সুস্থ রাখে।

কমলার উপকারিতা Health Benefits of Orange in short

১। আমাদের দেহে দৈনিক যতটুকু পরিমাণ ভিটামিন ‘সি’ দরকার তার সবটুকুই একটি কমলা থেকে পাওয়া যায়।
২। কমলাতে রয়েছে দেহের বিভিন্ন প্রকার রোগ প্রতিরোধ করার ক্ষমতা।
৩। কমলা বিভিন্ন ইনফেকশন প্রতিরোধে সহায়ক।
৪। কমলাতে রয়েছে বিটা ক্যারোটিন যা দেহের সেল ড্যামেজ প্রতিরোধ করে।
৫। এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম যা আমাদের দাঁত ও হাড়ের গঠন এ সহায়ক।
৬। এতে ম্যাগনেসিয়াম থাকার কারনে ব্লাড প্রেসার নিয়ন্ত্রণে সহায়ক।
৭। নিয়মিত কমলা খেলে ত্বক,মুখ,পাকস্থলী ভালো থাকে এবং স্তন ক্যান্সার হতে প্রতিহত করে।
৮। কমলা দেহের ওজন কমাতে সহায়ক।
৯। কমলা দেহের চর্বি কাটায়।
১০। প্রতি ১০০ গ্রাম কমলাতে রয়েছে… ভিটামিন ‘সি’ ৪৯ মিলিগ্রাম, ভিটামিন ‘বি’ ০.৮ মিলিগ্রাম,ক্যালসিয়াম ৩৩ মিলিগ্রাম, পটাশিয়াম ৩০০ মিলিগ্রাম, ফসফরাস ২৩ মিলিগ্রাম।

কমলার জুসের স্বাস্থ্য উপকারিতা : Health Benefits of Orange Juice

# কমলাতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি আছে যা শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় ভিটামিন সি এর অভাব পূরণ করে।
# কমলার জুসে উপস্থিত ভিটামিন সি দ্রুত সর্দি-কাশি সারিয়ে তোলে।
# কমলাতে প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট আছে যা ত্বকের সজীবতা বজায় রাখে।
# কমলার প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি যা যে কোনো ক্ষতস্থান দ্রুত শুকাতে সাহায্য করে।
# কমলাতে উপস্থিত বিটা ক্যারোটিন সেল ড্যামেজ প্রতিরোধে সহায়তা করে।
# কমলাতে উপস্থিত লিমিনয়েড স্তন ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়তা করে।
# কমলাতে আছে ভিটামিন বি যা হৃদরোগ প্রতিরোধের জন্য ভালো।

কমলার উপকারিতা। তাই আসুন নিয়মিত বিশেষ করে এই ফলটির ভরা মওসুমে স্বাস্থ্যকরী ফলটি গ্রহণ করে আমাদের পরিবারের সকল সদস্যদের সুস্বাস্থ্য নিশ্চিত করি। ভাল থাকুন আর Totaltipsbd.com এর সাথেই থাকুন।

কমলার উপকারিতা পোষ্টটি ভালো লাগলে শেয়ার করতে ভূলবেন না।

আরও পড়ুন 

ফ্রিজে কোন খাবার কতদিন রাখবেন

স্থায়ীভাবে ওজন কমানোর ৩০ টি উপায়

শেয়ার করুন

Add a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।