আসল নকল ডিম চেনার উপায়

আসল নকল ডিম চেনার উপায় । আসল ডিম আর নকল ডিম চেনার উপায়। বাজারে ছেয়ে গেছে নকল ডিম। এসব ডিম স্বাস্থ্যের জন্য খুবই ক্ষতিকর। তাই আসল ডিম আর নকল ডিম চেনা খুবই জরুরী। এই ভিডিওটি দেখে আপনি বুঝতে পারবেন আসল আর নকল ডিমের পার্থক্য কোথায়। কি কি পার্থক্য আছে আসল আর নকল ডিমের মধ্যে। চলুন ভিডিও দেখার আগে কিছু তথ্য দেই আপনাদেরকে আসল আর নকল ডিম সম্পর্কে। নিচের দশটি টিপস দিয়ে আপনি কৃত্রিম আর আসল ডিমের পার্থক্য বুঝতে পারবেন।
আসল নকল ডিম চেনার উপায়

আসল নকল ডিম চেনার উপায় 

১। কৃত্রিম ডিম অনেক বেশি ভঙ্গুর। এর খোসা অল্প চাপেই ভেঙে যায়।

২। নকল ডিম সিদ্ধ করলে কুসুম বর্ণহীন হয়ে যায়।

৩। ভাঙার পর আসল ডিমের মতো কুসুম এক জায়গায় না থেকে খানিকটা চারপাশে ছড়িয়ে পড়ে।
অনেক সময় পুরো কুসুমটাই নষ্ট ডিমের মত ছড়ানো থাকে।

৪। কৃত্রিম ডিম আকারে আসল ডিমের তুলনায় সামান্য বড়

৫। নকল ডিমের খোলস খুব মসৃণ হয়। খোসায় প্রায়ই বিন্দু বিন্দু ফুটকি দাগ দেখা যায়।

৬। রান্না করার পর নকল ডিমে অনেক সম্যেই বাজে গন্ধ হয়। কিংবা গন্ধ ছাড়া থাকে। আসল কুসুমের গন্ধ পাওয়া যায় না।

৭। নকল ডিমকে যদি আপনি সাবান বা অন্য কোন তীব্র গন্ধ যুক্ত বস্তুর সাথে রাখেন, ডিমের মাঝে সেই গন্ধ ঢুকে যায়। রান্নার পরেও ডিম থেকে সাবানের গন্ধই পেতে থাকবেন।

৮। নকল ডিমের আরেকটি উল্লেখ্য যোগ্য লক্ষণ হলো ডিম দিয়ে তৈরি খাবারে এটা ডিমের কাজ করে না। যেমন পুডিং বা কাবাবে ডিম দিলেন বাইনডার হিসাবে। কিন্তু রান্নার পর দেখবেন কাবাব ফেটে যাবে, পুডিং জমবে না।

৯। নকল ডিমের আকৃতি অন্য ডিমের তুলনায় তুলনামূলক লম্বাটে ধরণের হয়ে থাকে।

১০। নকল ডিমের কুসুমের চারপাশে রাসায়নিকের পর্দা থাকে বিধায় অক্ষত কুসুম পাওয়া গেলে সেই কুসুম কাঁচা কিংবা রান্না অবস্থাতে সহজে ভাঙতে চায় না।

নিচের ভিডিওতে দেখুন আসল নকল ডিম চেনার উপায় 

 

শেয়ার করুন

Add a Comment

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।